৮ বছর আগের মৃত নারী ফিরলেন ছয় সন্তান নিয়ে !

পরিবার থেকেই আসমা বিবির (২২) সঙ্গে ইবরার আহমেদের বিয়ের আয়োজন করা হয় ২০০৯ সালে। কিন্তু এক বছর ঘুরতে না ঘুরতে ২০১০ সালে হঠাৎ একদিন নিখোঁজ হয়ে যান আসমা। সবাই ধারণা করে নেয় তিনি বোধয় আর বেঁচে নেই। অথচ আট বছর পর আবারও হঠাৎ করে ফিরে আসলেন আসমা।

আসমা বিবি পাকিস্তানের পাঞ্জাব রাজ্যের পালায়ান গ্রামের বাসিন্দা। মেয়ে নিখোঁজ হওয়ার পরে, তার মা পুলিশে অভিযোগ করেন যে আসমার স্বামীই তার মেয়েকে হত্যা করেছে। পাকিস্তানের দণ্ডবিধি অনুযায়ী, ৩০২ ধারায় স্ত্রীকে হত্যা করার অভিযোগে ইবরার আহমেদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। যদিও, ক্ষতিপূরণের টাকা হাতে পেয়ে, আসমার মা সেই অভিযোগ প্রত্যাহার করেন।

তার পর কেটে যায় দীর্ঘ আট বছর। চলতি বছরের মার্চ মাসের শেষের দিকে হঠাতই একদিন নিজের গ্রামে উদয় হন আসমা। তবে নতুন নাম ‘নীলম’ নিয়ে। সঙ্গে ছয় সন্তান। খবর অনুযায়ী, আসমা ওরফে নীলমের প্রথম পক্ষের স্বামী, ইবরার আহমেদের এক আত্মীয় তাকে দেখে চিনতে পারেন এবং তৎক্ষণাৎ পুলিশে খবর দেন।

ধরা পড়েন নীলম। পুলিশি জেরায় নিজের আসল স্বীকার করে জানান যে তিনিই আসমা। পুলিশকে তিনি জানান, প্রেমিক নাজির আহমেদের সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছিলেন তিনি। বিয়ের আগে থেকেই তার সম্পর্ক ছিল নাজিরের সঙ্গে। তা সত্ত্বেও, তার পরিবার জোর করে বিয়ে দেয় ‌ইবরার সঙ্গে।

আসমা-নাজিরের বিরুদ্ধে ৪৯৪ ও ৪২০ ধারায় মামলা রুজু হয়েছে। কারণ, প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিবাহবিচ্ছদ না করেই দ্বিতীয় বিয়ে করেন আসমা। গত শনিবার আসমার জামিন মঞ্জুর করে আদালত। তার বদলে তাকে ৫০,০০০ টাকার দু’টি বন্ড জমা করার নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

জাগরণ এক্সপ্রেস/জেগে উঠুন আপনিও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *