তালাকের ৫০ বছর পর ফের তাদের বিয়ে!

তা প্রায় ৫০ বছর আগে তাদের তালাক হয়েছিল। তালাকের সময় তাদের পাঁচ সন্তান ছিল। তারা মনে করেছিল আর একসঙ্গে থাকা যাবে না। তালাকের পর অন্য মানুষের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন দুজনেই। কিন্তু বিচ্ছেদের ৫০ বছর পর ফের বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক হ্যারল্ড হল্যান্ড ও লিলিয়ান বারনেস। চলতি মাসে ১৪ এপ্রিল পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে অনুষ্ঠিত হবে।

১৯৫৫ সালে দু’জন ঘর বেঁধেছিলেন। কোন এক ঝড়ে সেই বাঁধন গিয়েছিল ছিঁড়ে। ১৯৬৭ সালে একে অপরকে ছেড়ে নতুন করে জীবন শুরু করেছিল। তবে পরষ্পরের প্রতি ভালোবাসাটা রয়েছিল অমলিন।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, হ্যারল্ড হল্যান্ড ও লিলিয়ান বারনেস যুক্তরাষ্ট্রের কেন্টাকির বাসিন্দা। ১৯৫৫ সালে তাঁদের চার হাত এক হয়েছিল। এরপর একে একে তাদের পাঁচ সন্তানের জন্ম হয়। ১৯৬৭ সালে তাদের তালাক হয়। তবে তালাকের পরও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখেছিলেন হ্যারল্ড ও লিলিয়ান। অন্য মানুষের সঙ্গে ঘর বেঁধেছিলেন তারা। দু’জনের দ্বিতীয় বিয়ে অনেক দিন টেকে। ২০১৫ সালে হ্যারল্ডের দ্বিতীয় স্ত্রী ও লিলিয়ানের দ্বিতীয় স্বামী মারা যান।

জানা গেছে, তালাকের ৫০ বছর পর একটি পারিবারিক অনুষ্ঠানে এই সাবেক দম্পতির দেখা হয়েছিল। পরস্পরকে দেখে দুজনেই অনুভব করেছিলেন যে, মনের টান এখনো অটুট আছে। সেই থেকে দুজনের মধ্যে ফের যোগাযোগ শুরু হয়। একপর্যায়ে আবারও বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন ওই দম্পত্তি। ওই দম্পত্তির মধ্যে বরের বয়স এখন ৮৩ বছর। কনের ৭৮। ৫০ বছর আগে তালাকের ঘটনার সমস্ত দায় নিজের ঘাড়ে নিয়েছেন হ্যারল্ড হল্যান্ড।

তিনি জানান, প্রথম বিয়ে না টেকার শতভাগ দোষ আমার। তবে তখন লিলিয়ানকে আমি সবই দিয়ে গিয়েছিলাম। আমাদের সন্তানদের অবহেলা করিনি আমি। জীবনের শেষ পর্যায়ে দাড়িয়ে তাই হ্যারল্ডের চাওয়া শেষ জীবনটা যেন তার সঙ্গেই কাটে। হ্যারল্ড বলেন, জীবনের শেষ মাইলটি একসঙ্গে হাঁটার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।

জাগরণ এক্সপ্রেস/জেগে উঠুন আপনিও

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *