থানায় মন চুরির অভিযোগ!

চুরি, ডাকাতি, খুন এমনসব নানা অভিযোগ আসে পুলিশের কাছে। তাই বলে কেউ মন চুরির অভিযোগ করতে পারে? পুলিশের কাছে গতানুগতিক অভিযোগ জানানোর প্রথা ভেঙে দিল ভারতের এক যুবক।

বুধবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি অনলাইনে জানায়, সম্প্রতি নাগপুরের একটি পুলিশ স্টেশনে অদ্ভুত এ অভিযোগ নিয়ে হাজির হন এক যুবক। অভিযোগ শুনে বিপাকে পড়ে পুলিশ।

নাগপুরের পুলিশ কমিশনার ভূষণ কুমার উপাধ্যায় গত সপ্তাহে এক অনুষ্ঠানে এসে ঘটনা সবার কাছে খুলে বলেন। তবে তিনি অভিযোগকারী যুবকের নাম-পরিচয় জানাননি। যে তরুণীর বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়, তার পরিচয়ও প্রকাশ করেননি নাগপুরের পুলিশ কমিশনার।

ওই অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনার এক ব্যক্তির হারিয়ে যাওয়া ৮২ লাখ রুপি তার কাছে ফিরিয়ে দেন। ওই টাকা ফিরিয়ে দিতেই এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

খবরে জানানো হয়, সম্প্রতি নাগপুরের একটি পুলিশ স্টেশনে এক যুবক হাজির হন। তিনি এক তরুণীর বিরুদ্ধে পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে চান। যুবকের অভিযোগ- একটি মেয়ে তার মন চুরি করেছে। চুরি যাওয়া মন পুলিশের সহায়তায় ফেরত পেতে চান তিনি!

যুবকের কাছ থেকে অভিযোগ শুনে পুলিশ থ হয়ে যায়! অভিযোগের বিষয়ে কী করবেন, ভেবে পান না পুলিশ স্টেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। অবশেষে তিনি তার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সব শুনে অভিযোগকারী যুবকের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিকভাবে কথা বলেন। পরে তারা যুবককে জানিয়ে দেন, ভারতের আইনে মন চুরির অভিযোগের বিষয়ে কোনো ধারা নেই। পুলিশ ওই যুবককে জানায়, তার সমস্যার কোনো সমাধান তাদের কাছে নেই। তাই যুবককে থানা থেকে ফেরত পাঠানো হয়।

জাগরণএক্সপ্রেস/আর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *